ভারতকে হারিয়ে প্রথম বালিকা সাফে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

0
8

আরবিএন রিপোর্ট

অন্য দলগুলো থেকে ফেভারিটের মর্যাদা আদায় করে নিয়ে টুর্নামেন্টে শুরু করেছিল বাংলাদেশ। বয়সভিত্তিক ফুটবলে দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলে লাল-সবুজের মেয়েদের উন্নতি যে চোখে পড়ার মতো। এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ আঞ্চলিক ফুটবলে টানা দুইবারের শিরোপাধারী বাংলাদেশ। সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবলে তাই স্বাগতিক দেশ হিসেবে শিরোপা ছাড়া অন্য কিছু ভাবনা ছিল না মেয়েদের। রোববার টুর্নামেন্টের ফাইনালে ভারতকে ১-০ গোলে হারিয়ে সেই কাঙ্খিত শিরোপা নিশ্চিত করলো বাংলাদেশ।

চার দলের আসরে লিগ পর্বে ভারতকে একরাব হারিয়ে লিগ সেরা বা গ্রুপ সেরা হয়ে ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। ৩-০ গোলে সেই ম্যাচ নিজেদের করেছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। এদিনও দাপুটে ফুটবলই খেলেছে বাংলাদেশ। ঠিক পরিকল্পিত ফুটবল বলতে যা বোঝায় সেটিই ছিল মারিয়া, তহুরা, আনুচিং, শামছুন্নাহারদের খেলায়। প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের ম্যান টু ম্যান মার্কিং করে অল আউট ফুটবল খেলে এদিন স্বাগতিকরা। যেমনটা আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন কোচ ছোটন।

তবে ব্যবধান এদিন আরো বড় হওয়াই উচিত ছিল। ১-০ গোলের ফল যে বাংলাদেশের মেয়েদের মাঠের প্রাধান্যটা ঠিক বোঝাতে পারে না। মেয়েদের ফাইনাল ম্যাচটি দেখতে প্রচুর দর্শক এলেন এদিন কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে। সারাক্ষণ মেয়েদের উজ্জীবিত করে গেলেন।

মেয়েরাও যেন তেতে উঠলো আরো। বেশ কিছু সুযোগ হাতছাড়া হতে হতে ৪১ মিনিটে এগিয়ে যাওয়া বাংলাদেশের। গোলদাতা শামসুন্নাহার। তার বানিয়ে দেওয়া বল থেকে আনুচিংয়ের কিক ভারত গোলকিপার প্রতিহত করলেন প্রথমে। ফিরতি বল থেকে শামসুন্নাহার ভুল করলেন না জালে জড়াতে। ১-০ গোলে এগিয়ে বিরতিতে যাওয়া বাংলাদেশের। বিরতি থেকে ফিরে বাংলাদেশ আর কোন গোল আদায় করে নিতে পারেনি ঠিক। তবে ভারতীয় রক্ষনকে তটস্থ রেখেছে আক্রমণের পর আক্রমণে।

নেপালকে ৬-০ গোলে হারিয়ে মেয়েদের বয়সভিত্তিক সাফের এই প্রথম আসরটিতে নিজেদের মিশন শুরু করেছিল বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচে ভুটানকে ৩-০ গোলে হারায় লাল-সবুজের মেয়েরা। এরপর ভারতের বিপক্ষেই জয় ৩-০ গোলে। অর্থাৎ আসরে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হলো বাংলাদেশ। ২০১৬ সালে তাজিকিস্তানে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ ফুটবলেও ভারতকে দুই বার হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল বাংলাদেশ। এই টুর্নামন্টে জিতে আরেকবার নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করলো মারিয়া-তহুরারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here