ছাত্রলীগ নেতা সহকারি কমিশনার মিশু বিশ্বাস ছিলেন বিএনপি অফিসের সামনে হামলার তত্ত্বাবধানে!

0
215

ঢাকা ব্যুরো:
ঢাকার নয়াপল্টনে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে গাড়িতে আগুণ ও পুলিশের গুলির ঘটনা নিয়ে এখনো রাজনীতিতে ঝড় বইছে। গত ১৪ নভেম্বর এই ঘটনার পর চলছে পাল্টাপাল্টি দোষারোপ। আজও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এই ঘটনাকে বলেছেন, নির্বাচন বানচালে বিএনপি’র ষড়যন্ত্র হিসাবে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে নির্বাচন কমিশন বলেছে এটা ফৌজদারি ঘটনা। এর তদন্ত অব্যাহত রয়েছে। পুলিশ অবশ্য এই ঘটনায় মামলা দায়ের করেছে। এতে আসামী হচ্ছে সাড়ে ৪শত। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস এবং তাঁর স্ত্রী মহিলা দলের সভানেত্রী আফরোজা আব্বাসও রয়েছেন আসামীর তালিকায়। বিএনপি দাবী করছে এটা সরকারের সাজানো নাটক।

এই ঘটনা নিয়ে এরকম পাল্টাপাল্টি দোষারোপের রাজনীতির মাঝেই আওয়ামী পন্থি মিডিয়া গুলোতেও ঝড় উঠেছে। তারাও ইনিয়ে বিনিয়ে এই ঘটনাকে বিএনপি’র ঘাড়ে চাপানোর চেষ্টা করছে অনবরত। ৭১ টেলিভিশন নামে একটি আওয়ামী প্রচারযন্ত্রে লাইভ টকশোতে এক আওয়ামী সাংবাদিকেদর মুখোমুখি হয়েছিলেন বিএনপি’র কেন্দ্রী কমিটির সদস্য নিপুন রায়। পরের দিনই তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আওয়ামী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত তাঁকে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে। এখনো তিনি পুলিশ হেফাজতে রয়েছেন।

এই ঘটনার অনুসন্ধান করেছে আরবিএন২৪। অনুসন্ধানে দেখা যায়, পুলিশের মতিঝিল বিভাগের সহকারি কমিশনার মিশু বিশ্বাসের নেতৃত্বে পল্টনের সেদিনের ঘটনা ঘটে। হেলমেট বাহিনী ছিল মিশু বিশ্বাসের নিয়ন্ত্রণে। ইতোমধ্যে গাড়িতে আগুন ধরানোর সময় যার ছবি ভাইরাল হয়েছে তিনি হলেন গুলশান থানা ছাত্রলীগের নেতা।

পুলিশের মতিঝিল বিভাগের সহকারি কমিশনার কে এই মিশু বিশ্বাস:


মিশু বিশ্বাস বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) শাখা ছাত্র লীগের সভাপতি ছিলেন এক সময়। ২০১১-১২ সালে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি থাকাকালেই মিশু বিশ্বাস নানা অপকর্মের সাথে জড়িয়ে পড়েন। চাদাবাজি ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে তাদের এই কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছিল তখন। পরবর্তীতে ৩৩তম বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে মিশু বিশ্বাস পুলিশে যোগ দেন।

http://archive.prothom-alo.com/detail/fbclid/IwAR13LRZxSVqlrqypMUPKKsRFwzpYx1rQpOCibGR6s6pEvwMoD7B03mTLMdI/news/263816

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here